1. [email protected] : dalim :
  2. [email protected] : dalim1 :
বৃহস্পতিবার, ২৮ অক্টোবর ২০২১, ০৫:০৭ পূর্বাহ্ন

অপহরণের মিথ্যা মামলা করায় বাদীর বিরুদ্ধে মামলার নির্দেশ।

  • প্রকাশিত হয়েছে : মঙ্গলবার, ১২ অক্টোবর, ২০২১
  • ৬০ বার পঠিত হয়েছে

ল লাইফ রিপোর্টঃ বরগুনায় এক ব্যক্তিকে অপহরণের ঘটনায় করা মামলায় আসামীদের অব্যহতি দিয়ে মামলার বাদী রুনু বেগম ও তার স্বামী কথিত ভিক্টিম হুমায়ুন কবিরের বিরুদ্ধে পেনাল কোডের ২১১ ধারায় ননএফআইআর প্রসিকিউসন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। আজ বরগুনার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট জনাব মো. নাহিদ হোসেন এই আদেশ প্রদান করেন।

আদালত সুত্রে জানা যায় বাদী রুনু বেগম তার স্বামী হুমায়ুন কবিরকে বিগত ১১/০৭/২০১৮ তারিখ আসামীরা অপহরণ করেছে মর্মে অভিযোগ দায়ের করেন। আদালত উক্ত নালিশী দরখাস্ত এজাহার হিসেবে গণ্য করে বেতাগী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কে তদন্তের নির্দেশ প্রদান করেন। তদন্তকালীন মামলার ভিক্টিম হুমায়ুন কবির আদালতে উপস্থিত হয়ে ফৌজদারি কার্যবিধির ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি প্রদান করেন। বিজ্ঞ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট জনাব মো. রাসেল মজুমদারের নিকট প্রদত্ত জবানবন্দিতে তিনি বলেন, আসামীদের সাথে জমিজমা নিয়ে দীর্ঘ দিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। আসামীদের সাথে অনেক মামলা থাকায় ঘটনার দিন বাকেরগঞ্জ বাসস্ট্যান্ড গিয়ে বাসে চড়ে ঢাকা যান। পরে আপোষ এর কথা শুনে বাড়ীতে আসেন। আসামীরা তাকে অপহরণ করেনি। বেতাগী থানার পুলিশ পরিদর্শক মো. আ: ছালাম মামলার তদন্ত শেষে আসামীদের বিরুদ্ধে ঘটনার সত্যতা না থাকায় চুড়ান্ত রিপোর্ট দাখিল করেন। পাশাপাশি বাদিনী ও ভিক্টিম পরস্পর যোগসাজশে আসামীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের করায় তাদের বিরুদ্ধে ননএফআইআর প্রসিকিউসন দাখিল করার অনুমতি চান।

বাদী প্রতিবেদনের বিরুদ্ধে নারাজি দাখিল করলে আদালত অদ্য শুনানি শেষে নারাজি নামঞ্জুর করে আসামীদের অব্যহতি প্রদান করেন এবং বাদী রুনু বেগম ও তার স্বামী হুমায়ুন কবিরের বিরুদ্ধে পেনাল কোডের ২১১ ধারা অনুযায়ী ননএফআইআর দাখিলের জন্য তদন্তকারী কর্মকর্তাকে নির্দেশ প্রদান করে। আদেশ প্রদানের সময় আদালতে বাদী ও আসামী সহ বরগুনা বারের আইনজীবীগণ উপস্থিত ছিলেন। আসামীপক্ষ উক্ত আদেশে সন্তোষ প্রকাশ করেন।

অনুগ্রহ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

এ সম্পর্কীত আরো সংবাদ