1. [email protected] : dalim :
  2. [email protected] : dalim1 :
বৃহস্পতিবার, ২৮ অক্টোবর ২০২১, ০৭:০৮ পূর্বাহ্ন

ম্যাজিস্ট্রেটের ব্যতিক্রমী রায়:কারাভোগের পরিবর্তে করতে হবে বাবা-মায়ের দেখাশোনা,লাগাতে হবে গাছ

  • প্রকাশিত হয়েছে : বুধবার, ৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ৬৯ বার পঠিত হয়েছে

ল লাইফ রিপোর্টঃ বরগুনায় মাদক মামলায় দোষী সাব্যস্ত হলেও ২ জনকে আসামীকে  যেতে হচ্ছে না কারাগারে । বরং মাদক বিরোধী জনমত, আন্দোলন এবং জনসচেতনায় ব্যক্তিগতভাবে অংশগ্রহণ করাসহ সাতটি শর্তে তাদের প্রবেশন মঞ্জুর করেছেন আদালত।

আজ বুধবার (৮ সেপ্টেম্বর) বরগুনার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত ০১ এর জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. নাহিদ হোসেন এ আদেশ দেন।

প্রবেশনপ্রাপ্তরা হলেন- বরগুনা সদর থানাধীন ভুতমারা গ্রামের মৃত গৌরঙ্গ রায়ের ছেলে স্বপন রায় ও একই এলাকার মনিন্দ্র রায় এর ছেলে তাপস রায়।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরনী থেকে জানা যায়, বিগত ০৭/০২/২০১৭ তারিখ ওই দুইজনকে গ্রেফতার করে বরগুনা জেলা গোয়েন্দা শাখার এস আই মো. আবু জাফর। এ সময় আসামি স্বপন রায়ের প্যান্টের পকেট থেকে ০৫ গ্রাম গাঁজা, আসামী তাপস সরকারের প্যান্টের পকেট থেকে ০৫ গ্রাম মোট ১০ গ্রাম উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় এস আই আবু জাফর বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন। পরে ডিবি বরগুনার ওসি শেখ আব্দুল্লাহ তদন্ত শেষে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

পরে সাক্ষ্য শেষে অদ্য রায়ে তাদের নিকট আত্মীয়, প্রবেসন অফিসারের উপস্থিতিতে ০৭টি পৃথক শর্তে ০১ বছর সময়কালের জন্য The Probation of Offenders Ordinance, 1960 এর ৫ ধারায় প্রবেশন প্রদান করেন।

প্রবেশনের ৭ শর্তাবলীগুলো ছিলঃ

১। রায়ে উল্লেখিত আসামীদ্বয় কখনো মাদক গ্রহন, পরিবহন ও বিক্রয় করবেন না।
২। আসামীরা মাদক বিরোধী জনমত, আন্দোলন এবং জনসচেতনায় ব্যক্তিগতভাবে অংশগ্রহণ করবেন ও ভূমিকা রাখবেন।

৩। আসামীদ্বয় তাদের জীবিত পিতামাতাকে দেখাশুনা করবেন এবং পর্যাপ্ত  ভরণপোষণ প্রদান করবেন।

৪। আসামীরা তাদের ছেলেমেয়েদের লেখাপড়া করাবেন এবং মেয়েরা বিয়ের উপযুক্ত না হওয়া পযন্ত বিবাহ দিবেন না।

৫। আসামীরা তাদের নিজ নিজ বাড়ীর আঙ্গিনায় ৩০ (ত্রিশ) টি ফলজ ও ৩০ টি বনজ গাছ রোপণ করবেন এবং উক্ত বিষয়টি প্রবেশন  কর্মকর্তাকে অবহিত করবেন।
৬। আসামীরা প্রবেশনকালিন তাদের নিজেদের অপরাধ হতে দূরে রাখার চেষ্টা  করবেন।

৭। আসামীরা দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রবেশন  কর্মকর্তার সাথে প্রতি মাসে ন্যূনতম ০১ (এক) বার দেখা করবেন ও
তার অগ্রগতি জানাবেন। এছাড়া প্রবেশন কর্মকর্তার সাথে যোগাযোগ রাখবেন। প্রবেশন কর্মকর্তার
নির্দেশ মতে তিনি নিজেকে পরিচালিত করার চেষ্টা করবেন।

রায় ঘোষণাকালে আদালতে প্রবেশন অফিসার মো. মিজানুর রহমান, আসামীপক্ষের কৌশুলীসহ ফেনী বারের আইনজীবীরা উপস্থিত ছিলেন।

উপস্থিত সকলেই অভিযুক্তদের স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসার লক্ষ্যে ও সুনাগরিক হিসাবে গড়ে উঠার জন্য এই প্রবেশন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবেন বলে মন্তব্য করেন।

দেশের প্রচলিত প্রবেশন আইন The Probation of Offenders Ordinance, 1960 এর ৫ ধারায় মোতাবেক সমাজ সেবা অফিসার ও প্রবেশন অফিসার, বরগুনা এর অধীনে আগামী ০১ (এক) বছরের অর্থাৎ ০৯/০৯/২০২২খ্রি. তারিখ পর্যন্ত সময়ের জন্য প্রবেশন প্রদান করা হয়।

আসামীরা যদি সন্তোষজনকভাবে প্রবেশনকাল অতিবাহিত করেন তবে এই মামলাকে অপরাধ হিসাবে গণ্য করা যাবে না মর্মে রায়ে আদালত উল্লেখ করেন।

অনুগ্রহ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

এ সম্পর্কীত আরো সংবাদ