1. [email protected] : dalim :
  2. [email protected] : dalim1 :
সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৪১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
পাঠ্যবইয়ে ভুল : এনসিটিবির চেয়ারম্যানকে হাইকোর্টে তলব মুনিয়াকে ধর্ষণের পর হত্যা: রিপনের হাইকোর্টে আগাম জামিন সরকারি কর্মচারীদের গ্রেফতারে পূর্বানুমতি কেন অবৈধ নয় সাবেক প্রতিমন্ত্রী আবদুল মান্নান দম্পতির বিচার শুরু বৃদ্ধা আছিয়াকে হাজির করতে এবার পুলিশকে নির্দেশ দিলেন হাইকোর্ট সিজিএম মোঃ শওকত আলীর সুস্থতা কামনায় ভার্চুয়াল দোয়া মাহফিল ই-কমার্স গ্রাহকদের স্বার্থরক্ষায় ৩৩ ভুক্তভোগীর রিট আসামির শরীরে ক্ষতচিহ্ন; স্বপ্রণোদিত হয়ে তদন্তের নির্দেশ দিলেন আদালত মিথ্যা তথ্য দিয়ে মামলায় প্রতিদ্বন্দ্বিতা করায় বিবাদীকে বিশ হাজার টাকা জরিমানা আন্তর্জাতিক শান্তি দিবস পালন করলো সিএমসি

অযথা বাইরে বেরিয়ে গুনলেন জরিমানা

  • প্রকাশিত হয়েছে : বৃহস্পতিবার, ২৯ জুলাই, ২০২১
  • ৩৭ বার পঠিত হয়েছে

ল লাইফ রিপোর্টঃকরোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে দুই সপ্তাহের বিধিনিষেধ নিশ্চিতে সপ্তম দিনের মতো চলছে কঠোর লকডাউন। বিধিনিষেধ বাস্তবায়নে মাঠে রয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। বিধিনিষেধ অমান্যকারীদের মোবাইল কোর্টের মাধ্যমেও জরিমানা করা হচ্ছে।

বেআইনিভাবে এই মোবাইল কোর্টের ছবি ও ভিডিও ধারণ করায় আনোয়ার হোসেন মঞ্জু নামে এক ব্যক্তিকে ৫০০ টাকা জরিমানা করেছেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সানজিদা পারভীন।

বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) ঢাকার প্রবেশপথ কেরানীগঞ্জের বাবু বাজার ব্রিজের মাথায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন কেরানীগঞ্জ উপজেলা প্রশাসন। এ সময় আনোয়ার হোসেন মঞ্জু মোবাইল কোর্টের ছবি ও ভিডিও ধারণ করেন। তার ছবি ও ভিডিও করা দেখে বিজিবির সদস্যরা তাকে মোবাইল কোর্ট পরিচালনাকারী ম্যাজিস্ট্রেট সানজিদা পারভীনের কাছে নিয়ে যান।

সানজিদা পারভীন তাকে বলেন, আপনি কেন ছবি ও ভিডিও করছেন? তখন উত্তরে আনোয়ার বলেন, আমি ডাক্তার দেখাতে ইবনে সিনাতে এসেছি। মোবাইল কোর্টের জরিমানা করা দেখা ছবি ও ভিডিও করি। আমি বিষয়টি বুঝতে পারিনি। তখন ম্যাজিস্ট্রেট তাকে বলেন, আপনি সরকারি কাজে বাধা দিয়েছেন। আপনাকে ৫০০ টাকা জরিমানা করা হলো। এরপর ৫০০ টাকা জরিমানা দিয়ে স্থান ত্যাগ করেন আনোয়ার।

এ বিষয় আনোয়ার হোসেন মঞ্জু বলেন, আমি ডাক্তার দেখাতে ইবনে সিনাতে এসেছিলাম। এ সময় বাবু বাজারের সামনে পুলিশ ও বিজিবির সদস্যরা মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করছেন তা দেখতে পাই। আমি তখন তাদের ছবি ও ভিডিও ধারণ করি। এ সময় আমাকে একজন বিজিবির সদস্য ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে নিয়ে যান। বেআইনিভাবে ছবি ও ভিডিও ধারণ করায় ম্যাজিস্ট্রেট আমাকে ৫০০ টাকা জরিমানা করেছেন। মোবাইল কোর্টের ছবি ও ভিডিও ধারণ করা আমার ভুল হয়েছে।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সানজিদা পারভীন বলেন, লকডাউনের বিধিনিষেধ বাস্তবায়নের জন্য আমরা মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করছি।যারা অকারণে চলাফেরা করছেন তাদের জরিমানা করছি। আর যারা যুক্তিসঙ্গত কারণ দেখাচ্ছেন- তাদের ছেড়ে দেয়া হচ্ছে।

এম/এ/হ

অনুগ্রহ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

এ সম্পর্কীত আরো সংবাদ