1. [email protected] : dalim :
  2. [email protected] : dalim1 :
সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৮:১৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
কুড়িগ্রাম জেলা ও দায়রা জজকে যুক্তিতর্কের জাবেদা কপি প্রদানের নির্দেশ উচ্চ আদালতের ডিআইজি প্রিজনস পার্থ গোপাল বণিক কারাগারে ফখরুলসহ ৩৯ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের শুনানি ২১ নভেম্বর বিএনপি নেতা দুলুর বিরুদ্ধে দুর্নীতি মামলা চলবে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের শুনানি ৩১ অক্টোবর ৪৬০ কোটির মালিক কম্পিউটার অপারেটর নুরুল ফের রিমান্ডে ‘ইভ্যালির চেয়ারম্যান-এমডি প্রতারক চক্রের লিডার’ ভুল চিকিৎসায় পুরুষত্বহীনতার অভিযোগ:২৪ ঘন্টার মধ্যে ওসিকে মামলা নেয়ার নির্দেশ দিলেন ম্যাজিষ্ট্রেট ফেনীর দাদনার খাল দখল ও দুষণের অভিযোগ:স্বপ্রণোদিত হয়ে তদন্তের নির্দেশ দিলেন স্পেশাল ম্যাজিস্ট্রেট ফেনীর দাদনার খাল দখল ও দুষণের অভিযোগ:স্বপ্রণোদিত হয়ে তদন্তের নির্দেশ দিলেন স্পেশাল ম্যাজিস্ট্রেট

স্ত্রী হত্যা : ফরিদপুরের মহসীন মোল্লার সাজা কমে যাবজ্জীবন

  • প্রকাশিত হয়েছে : বুধবার, ৭ জুলাই, ২০২১
  • ১২৫ বার পঠিত হয়েছে

ল লাইফ রিপোর্টঃ স্ত্রীকে হত্যার দায়ে ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলার কাটাগড় এলাকার বাসিন্দা মহসীন মোল্লার মৃত্যুদণ্ডের সাজা কমিয়ে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ। একই সঙ্গে তাকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ১৫ দিনের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। এদিকে, মহসীন মোল্লাকে অবিলম্বে কনডেম সেল থেকে সাধারণ সেলে নিতে কারা কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এছাড়া আইন ও কারাবিধি অনুযায়ী সব ধরনের সুবিধা দিতেও নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

বুধবার (৭ জুলাই) প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের ছয় সদস্যের ভার্চুয়াল বেঞ্চ এই রায় দেন। মামলায় আসামিপক্ষে রাষ্ট্রনিযুক্ত আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট হেলাল উদ্দিন মোল্লা। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল এএম আমিন উদ্দিন।

রায় ঘোষণার সময় আজও আপিল বিভাগের সব বিচারপতি, রাষ্ট্রপক্ষ ও আসামিপক্ষের আইনজীবী, সুপ্রিম কোর্টের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা সবাই ভার্চুয়ালি এই মামলার বিচারকাজে অংশ নেন।

জানা যায়, ২০০৫ সালের ৪ ফেব্রুয়ারি আকলিমাকে বিয়ে করেন মহসীন মোল্লা। কিন্তু বিয়ের কয়েক মাসের মাথায় ওই বছরের ১৮ আগস্ট খুন হন আকলিমা। পরদিন মহসীনকে ধরে পুলিশে দেয় স্থানীয় জনগণ। সেই থেকে তিনি কারাবন্দি। এ ঘটনায় মহসীন মোল্লার বিরুদ্ধে করা মামলায় বলা হয়, যৌতুকের জন্য আকলিমাকে হত্যা করা হয়েছে।

এ মামলায় বিচার শেষে ফরিদপুরের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল ২০০৬ সালের ১৮ এপ্রিল এক রায়ে মহসীন মোল্লাকে মৃত্যুদণ্ড দেন। এই রায় অনুমোদনের জন্য হাইকোর্টে ডেথ রেফারেন্স পাঠানো হয়। আর কারাবন্দি আসামির পক্ষ থেকে জেল আপিল করা হয়। উভয় আবেদনের ওপর শুনানি শেষে হাইকোর্ট ২০১২ সালের ২২ জানুয়ারি মৃত্যুদণ্ড বহাল রেখে রায় দেন।

এরপর ওই রায়ের বিরুদ্ধে কারাগার থেকে তিনি আপিল করেন। এই আপিল আবেদনের ওপর শুনানির সময় নিম্ন আদালতের বিচারে মারাত্মক ত্রুটি চোখে পড়ে আপিল বিভাগের। এ সময় আদালত নিম্ন আদালতের বিচারকের প্রতি চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেন। আদালত উভয়পক্ষের আইনজীবীদের শুনানি নিয়ে আসামির সাজা কমিয়ে রায় দেন।

অনুগ্রহ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

এ সম্পর্কীত আরো সংবাদ