1. [email protected] : dalim :
  2. [email protected] : dalim1 :
বৃহস্পতিবার, ২৮ অক্টোবর ২০২১, ১২:৪১ অপরাহ্ন

৮ আসামির মৃত্যুদণ্ডঃ রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে যাওয়ার সিদ্ধান্ত

  • প্রকাশিত হয়েছে : বুধবার, ১০ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ১৩৫ বার পঠিত হয়েছে

ল লাইফ রিপোর্টঃ  দীর্ঘ ছয় বছর পর জাগৃতি প্রকাশনীর স্বত্বাধিকারী ফয়সল আরেফিন দীপন হত্যা মামলা রায়ের ঘোষণা দিয়েছেন আদালত। বুধবার (১০ ফেব্রুয়ারি) রায়ে ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মজিবুর রহমান মামলার ৮ আসামির মৃত্যুদণ্ড দেন। আদালতের রায়ে সন্তুষ্ট না আসামিপক্ষের আইনজীবীরা। এ রায়ের বিরুদ্ধে তারা উচ্চ আদালতে আপিল করবেন বলেও জানিয়েছেন।

রায় ঘোষণা শেষে আসামি পক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট এম এ বি এম খায়রুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, আসামিদের মধ্যে ছয় জন উপস্থিত ছিলেন। বাকি দুইজন পলাতক। তাদের প্রত্যেককে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। কিন্তু এ মামলায় একজন প্রত্যক্ষদর্শী সাক্ষীও নেই। মূলত ঘটনাস্থলে কেউই ছিল না। এ রায়ে আমরা সন্তুষ্ট না। উচ্চ আদালতে গিয়ে আমরা রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করবো।

আসামিপক্ষে আরেক আইনজীবী অ্যাডভোকেট এম নজরুল ইসলাম বলেন, আমরা রায়ে সন্তুষ্ট না। আদালত রায় দিতেই পারেন। তবে যেহেতু উচ্চ আদালতে যাওয়ার অধিকার আছে, আসামিরা উচ্চ আদালতে যাবে। সমাজে এসব হত্যাকাণ্ড ও অসঙ্গতির বিচার হোক এটা আমরাও চাই। তবে আমরা ন্যায় বিচার চাই। এখানে আসামিরা দাবি করছেন তারা ন্যায়বিচার পাননি।

দীর্ঘদিন আটক নিজেদের (পুলিশ) শেখানো ১৬৪ ধারায় আসামিদের কাছ থেকে জবানবন্দী নেওয়া হয়েছে বলে তারা দাবি করেন।

বুধবার দুপুর ১২টা ২ মিনিটে ৫৩ পৃষ্ঠার রায় পড়া শুরু হয়। রায় শুনতে দীপনের স্ত্রী রাজিয়া রহমানসহ আরও দুই স্বজন আদালতে হাজির হন। এর আগে বেলা ১১টা ২০ মিনিটে আদালতের হাজতখানা থেকে ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনালে আসামিদের হাজির করা হয়।

দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- মেজর (বরখাস্তকৃত) সৈয়দ জিয়াউল হক জিয়া, আকরাম হোসেন ওরফে হাসিব ওরফে আবির ওরফে আদনান ওরফে আবদুল্লাহ, মইনুল হাসান শামীম ওরফে সামির ওরফে ইমরান, আবদুর সবুর সামাদ ওরফে সুজন ওরফে রাজু ওরফে স্বাদ, খাইরুল ইসলাম ওরফে জামিল ওরফে জিসান, আবু সিদ্দিক সোহেল ওরফে সাকিব ওরফে সাজিদ ওরফে শাহাব, মোজাম্মেল হুসাইন ওরফে সায়মন ওরফে শাহরিয়ার এবং শেখ আবদুল্লাহ ওরফে জুবায়ের ওরফে জায়েদ ওরফে জাবেদ ওরফে আবু ওমায়ের। এদের মধ্যে প্রথম দু’জন পলাতক রয়েছেন।

গত ২৪ জানুয়ারি উভয়পক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শুনানি শেষে রায় ঘোষণার জন্য এ তারিখ নির্ধারণ করেন আদালত। মামলায় ২৬ জন সাক্ষীর মধ্যে ২৩ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয়।

২০১৫ সালের ৩১ অক্টোবর রাজধানীর শাহবাগে আজিজ সুপার মার্কেটের নিজ অফিসে জাগৃতি প্রকাশনীর স্বত্বাধিকারী ফয়সল আরেফিন দীপনকে কুপিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। সেদিন বিকেলে তার স্ত্রী শাহবাগ থানায় হত্যা মামলাটি দায়ের করেন।

সূত্রঃ ঢাকা পোষ্ট

অনুগ্রহ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

এ সম্পর্কীত আরো সংবাদ