1. [email protected] : dalim :
  2. [email protected] : dalim1 :
সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:৩২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
কুড়িগ্রাম জেলা ও দায়রা জজকে যুক্তিতর্কের জাবেদা কপি প্রদানের নির্দেশ উচ্চ আদালতের ডিআইজি প্রিজনস পার্থ গোপাল বণিক কারাগারে ফখরুলসহ ৩৯ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের শুনানি ২১ নভেম্বর বিএনপি নেতা দুলুর বিরুদ্ধে দুর্নীতি মামলা চলবে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের শুনানি ৩১ অক্টোবর ৪৬০ কোটির মালিক কম্পিউটার অপারেটর নুরুল ফের রিমান্ডে ‘ইভ্যালির চেয়ারম্যান-এমডি প্রতারক চক্রের লিডার’ ভুল চিকিৎসায় পুরুষত্বহীনতার অভিযোগ:২৪ ঘন্টার মধ্যে ওসিকে মামলা নেয়ার নির্দেশ দিলেন ম্যাজিষ্ট্রেট ফেনীর দাদনার খাল দখল ও দুষণের অভিযোগ:স্বপ্রণোদিত হয়ে তদন্তের নির্দেশ দিলেন স্পেশাল ম্যাজিস্ট্রেট ফেনীর দাদনার খাল দখল ও দুষণের অভিযোগ:স্বপ্রণোদিত হয়ে তদন্তের নির্দেশ দিলেন স্পেশাল ম্যাজিস্ট্রেট

সুপ্রিম কোর্টের কার্যক্রম পরিচালনার জন্য আবেদন

  • প্রকাশিত হয়েছে : রবিবার, ৩ মে, ২০২০
  • ২৪৮ বার পঠিত হয়েছে

 
সুপ্রিম কোর্টের কার্যক্রম পরিচালনার জন্য প্রধান বিচারপতি বরাবর আবেদন করেছেন বাংলাদশ সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী মো. আজিজুর রহমান (দুলু)।

শরিবার প্রধান বিচারপতি বরাবর দেওয়া আবেদন পত্রে তিনি এ আহ্বান জানান।

এতে তিনি লিখেন, আমি সবিনয়ে আপনার সদয় বিবেচনার জন্য আবেদন করতেছি যে, বাংলাদেশে বরতমানে যে কার্যকর সংবিধানের অধীন নির্বাহী বিভাগ, আইন বিভাগ এবং বিচার বিভাগের একটি অংশ অর্থাৎ জুডিসিয়াল  ম্যাজিস্ট্রেসি এর  একাধিক জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট যখন সাধারণ ছুটির আওতায় থেকেও জরুরী কার্যক্রম এবং  জরুরী মামলার কার্যক্রম চালাতে পারেন সেই সংবিধানের অধীনে বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট জনগণের মৌলিক অধিকার  বলবৎ এর জন্য বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট ডিভিশন রুলস, ১৯৭৩  এর Chpater XIA এর ১০ নম্বর  রুল  এবং 53 DLR (2001) 414 পৃষ্ঠায় রিপোর্টেড  পদ্ধতিতে   গুরুতর প্রকৃতির কার্যক্রম চালাতে আইনগতভাবে যেমন কোন বাধা নাই তেমনি কোন বিজ্ঞ আইজীবীকেও আদালতে আসার প্রয়োজন নাই। বাংলাদেশের সম্মানিত কোন নাগরিক যেমন গুরুতর প্রকৃতির বিষয় নিয়ে চিঠি লিখতে পারবেন তেমনি যে কোন বিজ্ঞ আইনজীবী মহোদয়ও গুরুতর প্রকৃতির বিষয় নিয়ে ইমেইলে বা অন্য কোন মাধ্যমে চিঠি লিখতে পারবেন এবং উক্তভাবে প্রাপ্ত চিঠির বিষয় বস্তু অনুসারে বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট ডিভিশন রুল নাই সাই ইসু এবং অন্য যে কোন প্রয়োজনীয় আদেশ প্রদান করিতে  পারিবেন। 

‘মহোদয়,উপর্যুক্ত হাইকোর্ট ডিভিশন রুলস, ১৯৭৩  এর Chpater XIA এর ১০ নম্বর  রুল অনুসারে বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট ডিভিশন পত্রিকার রিপোর্ট দেখেও রুল নাই সাই ইসু এবং অন্য যে কোন প্রয়োজনীয় আদেশ প্রদান করিতে  পারিবেন এবং বর্তমানে দেশব্যাপী চলমান করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) রোগ সংক্রমণ  পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত কিংবা যথাযথ প্রক্রিয়ায় হাইকোর্ট ডিভিশন রুলস, ১৯৭৩ সংশোধিত না হওয়া পর্যন্ত হাইকোর্ট ডিভিশন রুলস, ১৯৭৩  এর Chpater XIA এর ১০ নম্বর  রুল  এবং 53 DLR (2001) 414 পৃষ্ঠায় রিপোর্টেড পদ্ধতিতে গুরুতর প্রকৃতির কার্যক্রম চালানোর জন্য প্রয়োজনীয় নির্দেশ জারি করিতে মহোদয়ের সুমহান মর্জি হয়। 

অনুগ্রহ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

এ সম্পর্কীত আরো সংবাদ