1. [email protected] : dalim :
  2. [email protected] : dalim1 :
সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৪৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
পাঠ্যবইয়ে ভুল : এনসিটিবির চেয়ারম্যানকে হাইকোর্টে তলব মুনিয়াকে ধর্ষণের পর হত্যা: রিপনের হাইকোর্টে আগাম জামিন সরকারি কর্মচারীদের গ্রেফতারে পূর্বানুমতি কেন অবৈধ নয় সাবেক প্রতিমন্ত্রী আবদুল মান্নান দম্পতির বিচার শুরু বৃদ্ধা আছিয়াকে হাজির করতে এবার পুলিশকে নির্দেশ দিলেন হাইকোর্ট সিজিএম মোঃ শওকত আলীর সুস্থতা কামনায় ভার্চুয়াল দোয়া মাহফিল ই-কমার্স গ্রাহকদের স্বার্থরক্ষায় ৩৩ ভুক্তভোগীর রিট আসামির শরীরে ক্ষতচিহ্ন; স্বপ্রণোদিত হয়ে তদন্তের নির্দেশ দিলেন আদালত মিথ্যা তথ্য দিয়ে মামলায় প্রতিদ্বন্দ্বিতা করায় বিবাদীকে বিশ হাজার টাকা জরিমানা আন্তর্জাতিক শান্তি দিবস পালন করলো সিএমসি

আমুকে কটূক্তি : হাইকোর্টে জামিন মেলেনি ছাত্রলীগ নেতার

  • প্রকাশিত হয়েছে : বুধবার, ২৮ জুলাই, ২০২১
  • ৫৫ বার পঠিত হয়েছে

ল লাইফ রিপোর্টঃআওয়ামী লীগের প্রবীণ নেতা আমির হোসেন আমু ও তার মেয়ে সুমাইয়া হোসেনকে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কটূক্তি করার অভিযোগে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় আটক ছাত্রলীগ নেতা তরিকুল ইসলামকে জামিন দেননি হাইকোর্ট।

বুধবার (২৮ জুলাই) বিচারপতি জে বি এম হাসানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে জামিন আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী এসকে ইউসুফুর রহমান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল তুষার কান্তি রায়।

আইনজীবী ইউসুফুর রহমান শুনানিতে বলেন, তরিকুল এফআইআরভুক্ত আসামি না। সাসপেকক্টেড (সন্দেহ) হিসেবে আসামি করা হয়েছে। তাছাড়া এফআইআরে কুরুচিপূর্ণ বক্তব্যের কথা বলা হয়েছে। কিন্তু কি বক্তব্য সেটি উল্লেখ করা হয়নি। এ মামলার এক নম্বর আসামি মো. রাব্বি। তিনি জামিনে আছেন। তরিকুল পাচঁ মাস ধরে কাস্টডিতে রয়েছেন। এ অবস্থায় জামিন প্রার্থনা করছি।

শুনানি নিয়ে আদালত দেখেন, এ আসামির বিরুদ্ধে আরও সাতটি মামলা রয়েছে। পরে আদালত তার জামিন না দিয়ে আবেদনটি বাতিল করে দেন।

গত বছরের ৫ ডিসেম্বর আমির হোসেন আমু ও তার মেয়ে সুমাইয়া হোসেনকে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হয়। এ মামলায় গ্রেফতার হয় ঝালকাঠি জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সম্পাদক শেখ মো. রাব্বী।

ঝালকাঠি জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক আ স ম মোস্তাফিজুর রহমান মনু ৬ ডিসেম্বর রাতে ঝালকাঠি থানায় রাব্বিসহ অজ্ঞাত ৪/৫ জনকে আসামি করে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে একটি মামলা দায়ের করেন।

এ মামলায় সন্দেহভাজন আসামি হিসেবে তরিকুল ইসলামকে চলতি বছরের ৯ এপ্রিল গ্রেফতার করে পুলিশ। নিম্ন আদালতে তার জামিন না হওয়ায় হাইকোর্টে জামিন আবেদন করেন।

এম/এ/হ

অনুগ্রহ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

এ সম্পর্কীত আরো সংবাদ