1. [email protected] : dalim :
  2. [email protected] : dalim1 :
বৃহস্পতিবার, ২৮ অক্টোবর ২০২১, ০৭:৪২ পূর্বাহ্ন

উত্তরা ৩ নম্বর সেক্টর কল্যাণ সমিতির নির্বাচন করতে হাইকোর্টের রায়

  • প্রকাশিত হয়েছে : শনিবার, ২১ আগস্ট, ২০২১
  • ৩৮ বার পঠিত হয়েছে

ল লাইফ রিপোর্টঃউত্তরা ৩ নম্বর সেক্টর কল্যাণ সমিতির নির্বাচন ছয় সপ্তাহের মধ্যে সম্পন্ন করার নির্দেশনা দিয়ে রায় ঘোষণা করেছেন হাইকোর্ট। সমাজ কল্যাণ সচিব, সমাজ কল্যাণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (ডিজি), উপপরিচালক, সহকারী পরিচালককে এই রায় বাস্তবায়ন করার জন্য বলেছেন আদালত।

রায়ের বিষয়টি শুক্রবার (২০ আগস্ট)ল লাইফ রিপোর্টকে নিশ্চিত করেন বিবাদীপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ।

তিনি জানান, নির্বাচন সংক্রান্ত বিষয়ে জারি করা রুলের চূড়ান্ত শুনানি নিয়ে হাইকোর্টের বিচারপতি মো. আশফাকুল ইসলাম ও বিচারপতি মো. ইকবাল কবির লিটনের সমন্বয়ে গঠিত ভার্চুয়াল বেঞ্চ এই রায় দেন।

আদালতে এদিন সমিতির সাবেক সভাপতি ড. হারুনুর রশিদ ও সদস্য নজুরুল ইসলামের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ। তাকে সহযোগিতা করেন অ্যাডভোকেট রিপন বাড়ৈ। অন্যদিকে, উত্তরা ৩ নম্বর সেক্টর কল্যাণ সমিতির বর্তমান সভাপতি শেখ মামুনুল হকের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার মাহবুব শফিক ও নাজমুল আলম।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, রাজধানী ঢাকার উত্তরা ৩ নম্বর সেক্টর কল্যাণ সমিতির মধ্যে নির্বাচনী বিরোধের পরিপ্রেক্ষিতে ২০২০ সালের ৯ সেপ্টেম্বর সমাজ কল্যাণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (ডিজি) সমবায় সমিতির প্রশাসক নিয়োগ করে নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য আদেশ জারি করেন। ওই আদেশ চ্যালেঞ্জ করে শেখ মামুনুল হক রিট দায়ের করেন। ওই রিটের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে ২০২০ সালের ৫ অক্টোবর রুল জারির পাশাপাশি প্রশাসক নিয়োগ স্থগিত ঘোষণা করে আদেশ দেন আদালত।

এর পরে ওই মামলায় সমিতির সাবেক সভাপতি ড. হারুনুর রশিদ ও সদস্য নজুরুল ইসলাম পক্ষভুক্ত হয়ে স্থগিতাদেশ প্রত্যাহারের আবেদন জানালে আদালত সেটি শুনানির জন্য গ্রহণ করে তারিখ নির্ধারণ করেন। ওই রুলের শুনানি নিয়ে বৃহস্পতিবার (১৯ আগস্ট) হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট বেঞ্চে উত্তরা ৩ নম্বর সেক্টর কল্যাণ সমিতির নির্বাচন ছয় সপ্তাহের মধ্যে সম্পন্ন করার নির্দেশনা দিয়ে রায় ঘোষণা করে।

আদালতের বরাত দিয়ে আইনজীবী মনজিল মোরসেদ জানান, উত্তরা ৩ নম্বর সেক্টর কল্যাণ সমিতির গঠনতন্ত্র অনুসারে প্রতি দুই বছরের জন্য নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। আর নিয়ম অনুযায়ী বছরের ২৫ ডিসেম্বরের নির্বাচন সম্পন্ন হওয়ার বিধান রয়েছে। তবে সাবেক কমিটি নির্বাচন না করায় একটি অ্যাডহক কমিটি গঠন করা হয়েছে। রিট পিটিশনার পাল্টা একটি কমিটি করলে সমিতির মধ্যে বিরোধ আরও ব্যাপক আকারে সৃষ্টি হয়। পরবর্তীতে সমাজ কল্যাণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এক অফিস আদেশে সমিতি পরিচালনার জন্য প্রশাসক নিয়োগ করেন।

শুনানিতে এই আইনজীবী বলেন, অধিকাংশ সদস্যই নির্বাচন চান কিন্তু অবৈধ প্রভাবের কারণে সঠিকভাবে সমিতির নির্বাচন করা যাচ্ছে না।

অন্যদিকে, বাদী পক্ষের আইনজীবী ব্যারিস্টার মাহবুব শফিক শুনানিতে বলেন, তার মক্কেল সমিতির বৈধ সভাপতি। তাই প্রশাসক নিয়োগ কর্তৃত্বহীন। দীর্ঘ শুনানি নিয়ে আদালত রায় ঘোষণা করেন।

এম/এ/হ

অনুগ্রহ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

এ সম্পর্কীত আরো সংবাদ