1. [email protected] : dalim :
  2. [email protected] : dalim1 :
বৃহস্পতিবার, ২৮ অক্টোবর ২০২১, ০৮:৫৬ অপরাহ্ন

দুদক কর্মকর্তার বদলি ঠেকাতে চাওয়া রিটকারীকে হাইকোর্টে তলব

  • প্রকাশিত হয়েছে : বৃহস্পতিবার, ৫ আগস্ট, ২০২১
  • ৫৯ বার পঠিত হয়েছে

ল লাইফ রিপোর্টঃপরিচয় নিশ্চিত হতে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) চট্টগ্রামের এক কর্মকর্তার বদলির আদেশ স্থগিত চেয়ে রিট আবেদনকারীকে তলব করেছেন হাইকোর্ট। আগামী ২৬ আগস্ট সকাল সাড়ে ১০টার মধ্যে তাকে আদালত উপস্থিত থাকতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৫ আগস্ট) বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিমের বিশেষ হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালতে দুদকের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট খুরশিদ আলম খান।

পরে তিনি ঢাকা পোস্টকে বলেন, দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয় চট্টগ্রাম-২ এর উপ-সহকারী পরিচালক মো. শরীফ উদ্দিনের বদলির আদেশ ঠেকাতে শহিদুল ইসলাম লিটন নামে এক ব্যক্তি রিট করেছিলেন। তিনি কক্সবাজারের চকরিয়ার একটি মানবাধিকার সংগঠনের সভাপতি পরিচয়ে রিট করেন। তিনি সঠিক ব্যক্তি কি না আদালত তার পরিচয় নিশ্চিত হতে চান। এ কারণে তাকে তলব করা হয়েছে।

একইসঙ্গে ওই কর্মকর্তার বদলি সংক্রান্ত ভুয়া সার্টিফায়েড কপি সরবরাহ করা এবং তার ভিত্তিতে ভুল সংবাদ পরিবেশন করার পেছনে জড়িতদের বের করতে দুদককে তদন্ত করতে বলেছেন আদালত।

দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয় চট্টগ্রাম-২ এর উপ-সহকারী পরিচালক মো. শরীফ উদ্দিনের বদলি নিয়ে চট্টগ্রামের দৈনিক পূর্বকোণসহ বেশ কয়েকটি পত্রিকা ভুল সংবাদ প্রকাশ করে। ইতোমধ্যে পত্রিকাগুলোর কর্তৃপক্ষ ক্ষমা প্রার্থনা করেছে।

‘সেই দুদক কর্মকর্তার বদিল আদেশ স্থগিত’ শিরোনামে গত ২৯ জুলাই চট্টগ্রামের দৈনিক পূর্বকোণ পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশিত হয়। সংবাদটি আদালতের নজরে আনেন সুপ্রিম কোর্টের একজন আইনজীবী। তখন বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম বলেন, না, আমরা এমন কোনো আদেশ দেইনি।

এ সময় আইনজীবী ওই পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদটি আদালতকে দেখান। তখন আদালত দুদকের আইনজীবী খুরশিদ আলম খানকে ডেকে এ বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দেন।

সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মো. মাজহরুল হকের স্বাক্ষরিত হাইকোর্টের একটি আদেশের অনুলিপির বরাত দিয়ে দৈনিক পূর্বকোণ পত্রিকার রিপোর্টে বলা হয়, হাইকোর্টের আদেশ বলা হয়েছে, আগামী দুই সপ্তাহে জন্য দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) সমন্বিত জেলা কার্যালয়, চট্টগ্রাম-২ এর উপ-সহকারী পরিচালক মো. শরীফ উদ্দিন স্বপদে বহাল রাখার আদেশ প্রদান করেন। এ বিষয়ে পরবর্তী শুনানি করতে ওই আদেশ বলা হয়েছে।

কিন্তু লিখিত অনুলিপিতে দেখা যায়, আইনজীবী তার সার্টিফাইড কপিতে দুই সপ্তাহের জন্য স্ট্যান্ডওভার (মুলতবি) লিখেছেন। কোথাও স্টে (স্থগিত) লেখা হয়নি।

এ কর্মকর্তাকে সম্প্রতি পটুয়াখালীতে বদলি করে দুদক। ওই আদেশ স্থগিত চেয়ে হাইকোর্টে রিট করা হয়। হাইকোর্ট এ বিষয়ে কোনো আদেশ না দিয়ে আবেদনটি ডিলিট করে দেন।

এম/এ/হ

অনুগ্রহ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

এ সম্পর্কীত আরো সংবাদ