1. [email protected] : dalim :
  2. [email protected] : dalim1 :
বৃহস্পতিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ০২:২৯ পূর্বাহ্ন

নাসিরের স্ত্রী তামিমার দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা চেয়ে চিঠি

  • প্রকাশিত হয়েছে : মঙ্গলবার, ২৩ মার্চ, ২০২১
  • ১৮৬ বার পঠিত হয়েছে

ল লাইফ রিপোর্ট: ক্রিকেটার নাসিরের স্ত্রী তামিমা সুলতানা তাম্মির দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা চেয়ে সৌদি এয়ারলাইন্সের কান্ট্রি ম্যানেজারকে চিঠি পাঠানো হয়েছে। তামিমার সাবেক স্বামী রাকিব হাসানের পক্ষে অ্যাডভোকেট ইশরাত হাসান এ চিঠি পাঠান।

বিষয়টি নিশ্চিত করে সোমবার (২২ মার্চ) অ্যাডভোকেট ইশরাত হাসান বলেন, সৌদি এয়ারলাইন্সের কান্ট্রি ম্যানেজারকে চিঠিতে বলেছি, কেবিন ক্রু তামিমা সুলতানা তাম্মির বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা চলমান। মামলা শেষ না হওয়া পর্যন্ত এয়ারলাইন্সে চাকরি করার সুবাদে তিনি যেন দেশত্যাগ করতে না পারেন।

এদিকে প্রতারণার হাত থেকে পারিবারিক সম্মান রক্ষা করতে বিয়ে ও ডিভোর্স রেজিস্ট্রেশন ডিজিটালাইজ করার নির্দেশনা চেয়ে রাকিবের রিটের শুনানি হবে মঙ্গলবার (২৩ মার্চ)। গত ৪ মার্চ হাইকোর্টে এ রিট দায়ের করা হয়। রিটে বিয়ে-ডিভোর্স সংক্রান্ত বিষয়ে সম্মান রক্ষা করতে এবং পারিবারিক জীবন বাঁচাতে বিয়ে ও ডিভোর্স রেজিস্ট্রেশন ডিজিটালাইজ করতে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না, এই মর্মে রুল জারির আর্জি জানানো হয়েছে।

ক্রিকেটার নাসিরের সদ্য বিবাহিত স্ত্রী তামিমা সুলতানা তাম্মির আগের স্বামী ভুক্তভোগী রাকিব হাসানসহ তিন ব্যক্তি ও একটি সংগঠন এ রিট দায়ের করেন। রিটকারী অন্যরা হলেন, ভুক্তভোগী সোহাগ হোসেন, কামরুল হাসান ও এইড ফর ম্যান ফাউন্ডেশন। আইন সচিব, তথ্য ও প্রযুক্তি সচিব, ধর্ম সচিব ও বিটিআরসির চেয়ারম্যানকে রিটে বিবাদী করা হয়েছে।

এর আগে গত ২২ ফেব্রুয়ারি বিয়ে ও ডিভোর্স রেজিস্ট্রেশন ডিজিটালাইজ করার নির্দেশনা চেয়ে লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়। তামিমার স্বামী ভুক্তভোগী রাকিব হাসানসহ তিন ব্যক্তি ও এক সংগঠনের পক্ষ থেকে অ্যাডভোকেট ইশরাত হাসান এ নোটিশ পাঠান।

নোটিশে উল্লেখ করা হয়, বিয়ে ও ডিভোর্স রেজিস্ট্রেশনের আইনগত বিধান থাকলেও তা ডিজিটাল না করার ফলে অসংখ্য প্রতারণার ঘটনা ঘটেছে। এছাড়া, বিয়ে গোপন রেখে ডিভোর্স না দিয়ে বিয়ে করার অনেক ঘটনা ঘটতে দেখা যাচ্ছে। এর ফলে, সন্তানের পিতৃপরিচয় নিয়েও জটিলতা দেখা যাচ্ছে। বিয়ে সংক্রান্ত অপরাধ বেড়ে অসংখ্য মামলার জন্ম নিচ্ছে। তাই, বিয়ে ও ডিভোর্স রেজিস্ট্রেশন ডিজিটাল হওয়া একান্ত আবশ্যক। বিয়ে ও ডিভোর্স ডিজিটালাইজ করলে তার জাতীয় পরিচয়পত্রের নম্বর দিয়ে সার্চ করলেই সব তথ্য বেরিয়ে আসবে। এতে প্রতারণার হাত থেকে অসংখ্য মানুষ রক্ষা পাবে।

অ্যাডভোকেট ইশরাত হাসান বলেন, বিয়ে ও ডিভোর্সের ক্ষেত্রে রেজিস্ট্রেশন আনুষ্ঠানিকভাবে ডিজিটাল হওয়া জরুরি। বর–কনের ছবিসহ বিয়ে ও তালাকের রেজিস্ট্রেশন ডিজিটালাইজ করা হলে তথ্যের সত্যতা যাচাই করা যাবে। নোটিশ পাওয়ার তিন দিনের মধ্যে বিয়ে ও ডিভোর্স রেজিস্ট্রেশন ডিজিটাল করার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করার অনুরোধ করা হয়। নোটিশ দেওয়ার পরও বিয়ে ও ডিভোর্স রেজিস্ট্রেশন ডিজিটাল করতে কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ না করায় হাইকোর্টে এ রিট দায়ের করা হয়।

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর উত্তরার একটি রেস্তোরাঁয় নাসির ও তামিমা তাম্মির বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা শেষ হয়। নাসিরের স্ত্রী পেশায় একজন কেবিন ক্রু। কাজ করেন সৌদি এয়ারলাইন্সে। বিয়ের পর সাবেক স্বামী রাকিব হাসান অভিযোগ করেন, ডিভোর্স না দিয়েই পুনরায় বিয়ে করেছেন তামিমা। রাকিব উত্তরা পশ্চিম থানায় এ বিষয়ে একটি জিডি করেন। এতে উল্লেখ করা হয়, রাকিব ও তামিমার সংসারের বয়স ১১ বছর। তাদের ৮ বছরের একটি মেয়ে রয়েছে।

অনুগ্রহ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

এ সম্পর্কীত আরো সংবাদ