1. [email protected] : dalim :
  2. [email protected] : dalim1 :
সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:০৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
পাঠ্যবইয়ে ভুল : এনসিটিবির চেয়ারম্যানকে হাইকোর্টে তলব মুনিয়াকে ধর্ষণের পর হত্যা: রিপনের হাইকোর্টে আগাম জামিন সরকারি কর্মচারীদের গ্রেফতারে পূর্বানুমতি কেন অবৈধ নয় সাবেক প্রতিমন্ত্রী আবদুল মান্নান দম্পতির বিচার শুরু বৃদ্ধা আছিয়াকে হাজির করতে এবার পুলিশকে নির্দেশ দিলেন হাইকোর্ট সিজিএম মোঃ শওকত আলীর সুস্থতা কামনায় ভার্চুয়াল দোয়া মাহফিল ই-কমার্স গ্রাহকদের স্বার্থরক্ষায় ৩৩ ভুক্তভোগীর রিট আসামির শরীরে ক্ষতচিহ্ন; স্বপ্রণোদিত হয়ে তদন্তের নির্দেশ দিলেন আদালত মিথ্যা তথ্য দিয়ে মামলায় প্রতিদ্বন্দ্বিতা করায় বিবাদীকে বিশ হাজার টাকা জরিমানা আন্তর্জাতিক শান্তি দিবস পালন করলো সিএমসি

চট্টগ্রামে গৃহবধূ হত্যায় চারজনের মৃত্যুদণ্ড

  • প্রকাশিত হয়েছে : বুধবার, ৩ মার্চ, ২০২১
  • ১৫৫ বার পঠিত হয়েছে

ল লাইফ রিপোর্ট: চট্টগ্রামের বায়েজিদে পাঁচ বছর আগে গৃহবধূ পারভীনকে হত্যার ঘটনায় ৪ জনের মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। বুধবার (৩ মার্চ) দুপুরে চট্টগ্রামের চতুর্থ অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ শরিফুল আলম ভুঁইয়া এ রায় ঘোষণা করেন।

মৃত্যুদণ্ড পাওয়া চার আসামি হলেন- ফটিকছড়ির সমিতির হাট এলাকার মোহম্মাদ ইয়াছিন, হাটহাজারীর পূর্বমেখল গ্রামের মনসুর, আবু তৈয়ব ও মোহাম্মদ ইসহাক। এদের মধ্যে মোহাম্মদ ইয়াছিন ছাড়া বাকি তিন আসামি উচ্চ আদালত থেকে জামিন পাওয়ার পর পলাতক রয়েছেন।

রাষ্ট্রপক্ষের অতিরিক্ত পিপি নোমান চৌধুরী বলেন, নিহত নারীর স্বামী হত্যা ও দস্যুতার অভিযোগে মামলা করেছিলেন। হত্যার দায়ে মৃত্যুদণ্ড ও দস্যুতার ধারায় (৩৯৪ ধারা) আসামিদের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড, প্রত্যেককে ২০ হাজার টাকা করে জরিমানা এবং অনাদায়ে আরও এক বছরের সাজা দিয়েছেন আদালত।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০১৬ সালের ৫ মার্চ রাতে চট্টগ্রামের বায়েজিদের জনাবা ভিলার তৃতীয় তলায় টাকা ও স্বর্ণালঙ্কার ডাকাতির পর শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয় গৃহবধূ পারভীন আকতারকে। এ ঘটনায় পারভীনের স্বামী অজ্ঞাতদের আসামি করে হত্যা ও দস্যুতার অভিযোগে মামলা করেন। ২০১৬ সালের ১৩ জুন পুলিশ এ মামলায় অভিযোগপত্র দেয়। অভিযোগ গঠন করা হয় ২০১৭ সালের ৫ মার্চ। ১০ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আদালত আজ (বুধবার) চারজনের বিরুদ্ধে এ রায় দিলেন।

অনুগ্রহ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

এ সম্পর্কীত আরো সংবাদ