1. [email protected] : dalim :
  2. [email protected] : dalim1 :
রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:৩৩ অপরাহ্ন
শিরোনাম
কুড়িগ্রাম জেলা ও দায়রা জজকে যুক্তিতর্কের জাবেদা কপি প্রদানের নির্দেশ উচ্চ আদালতের ডিআইজি প্রিজনস পার্থ গোপাল বণিক কারাগারে ফখরুলসহ ৩৯ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের শুনানি ২১ নভেম্বর বিএনপি নেতা দুলুর বিরুদ্ধে দুর্নীতি মামলা চলবে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের শুনানি ৩১ অক্টোবর ৪৬০ কোটির মালিক কম্পিউটার অপারেটর নুরুল ফের রিমান্ডে ‘ইভ্যালির চেয়ারম্যান-এমডি প্রতারক চক্রের লিডার’ ভুল চিকিৎসায় পুরুষত্বহীনতার অভিযোগ:২৪ ঘন্টার মধ্যে ওসিকে মামলা নেয়ার নির্দেশ দিলেন ম্যাজিষ্ট্রেট ফেনীর দাদনার খাল দখল ও দুষণের অভিযোগ:স্বপ্রণোদিত হয়ে তদন্তের নির্দেশ দিলেন স্পেশাল ম্যাজিস্ট্রেট ফেনীর দাদনার খাল দখল ও দুষণের অভিযোগ:স্বপ্রণোদিত হয়ে তদন্তের নির্দেশ দিলেন স্পেশাল ম্যাজিস্ট্রেট

জামিনের মেয়াদ বাড়ল রন হক সিকদারের

  • প্রকাশিত হয়েছে : বুধবার, ১০ মার্চ, ২০২১
  • ২২৮ বার পঠিত হয়েছে

ল লাইফ রিপোর্ট: রাজধানীর গুলশান থানায় দায়ের করা হত্যাচেষ্টা মামলায় সিকদার গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) রন হক সিকদারের জামিনের মেয়াদ ১১ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়িয়েছেন আদালত।

নির্ধারিত জামিনের মেয়াদ শেষে আজ (বুধবার) আইনজীবীর মাধ্যমে আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করেন রন হক। এরপর ঢাকা মেট্রেপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট রাজেশ চৌধুরীর আদালত ১১ এপ্রিল পর্যন্ত তার জামিন মঞ্জুর করেন। আদালতের সংশ্লিষ্ট থানার সাধারণ নিবন্ধন (জিআর) শাখা থেকে এ তথ্য পাওয়া গেছে।

বাবা মারা যাওয়ায় বিশেষ বিবেচনায় গত ১২ ফেব্রুয়ারি ঢাকা মেট্রেপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আশেক ইমামের আদালত ১০ মার্চ পর্যন্ত রন হক সিকদারের জামিন মঞ্জুর করেছিলেন। ওই দিন সকালেই হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে গ্রেফতার হয়েছিলেন রন।

এক্সিম ব্যাংকের দুই কর্মকর্তাকে নির্যাতন ও গুলি করে হত্যাচেষ্টার অভিযোগে সিকদার গ্রুপ অব কোম্পানিজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) রন হক সিকদার ও তার ভাই দিপু হক সিকদারের বিরুদ্ধে রাজধানীর গুলশান থানায় গত বছর মামলা করে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ।

মামলার বিবরণীতে বলা হয়, গত ৭ মে রন ও দিপু এক্সিম ব্যাংকের এমডি মুহাম্মদ হায়দার আলী মিয়া ও অতিরিক্ত এমডি মুহাম্মদ ফিরোজ হোসেনকে একটি অ্যাপার্টমেন্টে বন্দী করে রাখেন। এমনকি তাদের গুলি করে হত্যা করার চেষ্টা করা হয়।

মামলায় ব্যাংক কর্তৃপক্ষ আরও উল্লেখ করে, নির্যাতনের একপর্যায়ে সাদা কাগজে সই নিয়ে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়। সিকদার গ্রুপ ব্যাংকটির কাছে ৫০০ কোটি টাকা ঋণ প্রস্তাব দিলে এর বিপরীতে গ্রুপের বন্ধকি সম্পত্তি পরিদর্শনে যান ব্যাংকের দুই কর্মকর্তা। সে সময় এ ঘটনা ঘটে। এতে আরও বলা হয়েছে, গ্রুপের এমডির দাবির তুলনায় বন্ধকি সম্পত্তির মূল্য কম ছিল।

মামলা হওয়ার পর থেকে পলাতক ছিলেন রন ও দিপু পলাতক ছিলেন। ১০ ফেব্রুয়ারি দুবাইয়ে বাংলাদেশ সময় আনুমানিক রাত ২টায় রন হক সিকদারের বাবা বিশিষ্ট শিল্পপতি সিকদার গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের কর্ণধার ও বীর মুক্তিযোদ্ধা জয়নুল হক সিকদার মারা গেলে দেশে ফিরে বিমানবন্দর থেকেই তাকে গ্রেফতার হন রন হক সিকদার।

অনুগ্রহ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

এ সম্পর্কীত আরো সংবাদ