1. [email protected] : dalim :
  2. [email protected] : dalim1 :
রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:০৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম
কুড়িগ্রাম জেলা ও দায়রা জজকে যুক্তিতর্কের জাবেদা কপি প্রদানের নির্দেশ উচ্চ আদালতের ডিআইজি প্রিজনস পার্থ গোপাল বণিক কারাগারে ফখরুলসহ ৩৯ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের শুনানি ২১ নভেম্বর বিএনপি নেতা দুলুর বিরুদ্ধে দুর্নীতি মামলা চলবে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের শুনানি ৩১ অক্টোবর ৪৬০ কোটির মালিক কম্পিউটার অপারেটর নুরুল ফের রিমান্ডে ‘ইভ্যালির চেয়ারম্যান-এমডি প্রতারক চক্রের লিডার’ ভুল চিকিৎসায় পুরুষত্বহীনতার অভিযোগ:২৪ ঘন্টার মধ্যে ওসিকে মামলা নেয়ার নির্দেশ দিলেন ম্যাজিষ্ট্রেট ফেনীর দাদনার খাল দখল ও দুষণের অভিযোগ:স্বপ্রণোদিত হয়ে তদন্তের নির্দেশ দিলেন স্পেশাল ম্যাজিস্ট্রেট ফেনীর দাদনার খাল দখল ও দুষণের অভিযোগ:স্বপ্রণোদিত হয়ে তদন্তের নির্দেশ দিলেন স্পেশাল ম্যাজিস্ট্রেট

জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের এখতিয়ার চর্চা করায় অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটকে সতর্ক করলেন আদালত

  • প্রকাশিত হয়েছে : মঙ্গলবার, ২৯ জুন, ২০২১
  • ৫৬৯ বার পঠিত হয়েছে
Judge gavel and scale in court. Library with lot of books in background

ল লাইফ রিপোর্টঃ এখতিয়ার বহির্ভূতভাবে জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এর ক্ষমতা প্রয়োগ করায় দিনাজপুর জেলার এডিএম জনাব আসিফ মাহমুদ কে সতর্ক করেছেন অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ জনাব মেহেদী হাসান মন্ডল এর আদালত। আদালত সূত্রে জানা যায় যে,জনৈক পালান চন্দ্র সরকার গত ইং ০৫.০৮.২০ তারিখে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সিআরপিসি’র ১৪৪ ধারায় একটি মামলা আনয়ন করেন। নালিশী সম্পত্তিতে প্রার্থীর দখল না থাকায় আদালত প্রার্থীর আবেদন না মঞ্জুর করে মামলাটি নথিজাত করেন।

প্রার্থী উক্ত আদেশ এর অসম্মতিতে অতিরিক্ত দায়রা জজ আদালতে রিভিশন আনয়ন করলে রিভিশন আদালত নথি পর্যালোচনায় দেখতে পান যে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট তার সিদ্ধান্ত গ্রহণের পূর্বে বে আইনী ও ক্ষমতাবহির্ভূতভাবে প্রার্থীর জবানবন্দি রেকর্ড করেছেন। আইনত মামলার এই পর্যায়ে জবানবন্দি রেকর্ড করার সুযোগ নেই। তাছাড়া কোন মামলার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত গ্রহণের জন্য বাদীর জবানবন্দি রেকর্ড করার এখতিয়ার শুধুমাত্র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এর থাকায় এবং অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট বে আইনীভাবে জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এর ক্ষমতা চর্চা করায় অতিরিক্ত দায়রা জজ আদালত রিভিশন আদালত হিসেবে তাকে সতর্ক করেছেন।

ভবিষ্যতে জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এর ক্ষমতা চর্চা না করার জন্য সাবধান করে রিভিশন আদালত আরও বলেন যে Cr.P.C’র scheme অনুযায়ী প্রার্থীর জবানবন্দি নেয়ার এখতিয়ার শুধুমাত্র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট-এর আছে,  নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এর নেই; Cr.P.C ২০০ ধারা মতে শুধুমাত্র একজন ম্যাজিস্ট্রেট অভিযোগকারীর জবানবন্দি রেকর্ড করতে পারেন; উক্ত ধারায় জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বলা না থাকলেও Cr.R.C’র ৪এ(১)(এ) ধারা মতে আইনে শুধুমাত্র ম্যাজিস্ট্রেট লেখা থাকলে এবং জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট লেখা না থাকলে ম্যাজিস্ট্রেট  বলতে জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বোঝায়। সেই অর্থে Cr.P.C ২০০ ধারার জবানবন্দি শুধুমাত্র একজন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট গ্রহন করতে পারেন কোন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নয়। মূল মামলাটিতে প্রার্থীর জবানবন্দি গ্রহণের মাধ্যমে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট একজন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এর ক্ষমতা ব্যবহার করে আইনের ব্যত্যয় ঘটিয়েছেন।

অনুগ্রহ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

এ সম্পর্কীত আরো সংবাদ